লেবুর সুগন্ধেই হতে হবে মোহিত। রসে ভরা আর লেবুর ঘ্রানেই  যেন খাবারের মধ্যে  আকর্ষণ বাড়িয়ে তুলে। তার নাম লেবু। অত্যন্ত পুষ্টিগুণে ভরপুর লেবু। লেবুতে  ভিটামিন সি রয়েছে। যা আমাদের শরীরের অনেক উপকার করে থাকে।  লেবু, মধু পানি খুব জনপ্রিয়। লেবু আমাদের রুচি বাড়ায়।

লেবুর উপকারিতা




তীব্র  গরমে যখন দাবদাহে ক্লান্ত শরীর , ঠিক তখনই এক গ্লাস লেবুর শরবত হলে প্রাণটা জুরিয়ে যায়। শরীরের ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। শুধু শরবত হিসেবেই নয়, লেবু আপনি খেতে পারেন সব সব খাবারের সাথেই,তবে গরম ভাত,ডাল, শাক এতে লেবুর রস নিয়ে আসে অমৃত স্বাদ। তবে আপনি জানেন কি লেবু আমাদের কি উপকারে আসে? আসুন জেনে নেই লেবুর উপকারিতা__



আপনার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব থেকে শুরু করে পেট পরিষ্কার রাখার মতো প্রচুর উপকার করে থাকে । লেবুতে অনেক প্রকার গুনাগুন রয়েছে।



১। লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। যা আমাদের চর্বি কমাতে সাহায্যে করে থাকে। যাদের শরীরে চর্বি বেশি তারা নিয়মিত লেবু খেলে ভালো উপকার পাবেন।ওজন বা চর্বি কমাতে লেবু খুব ভালো টনিক হিসাবে কাজ করে থাকে।



২। ভিটামিন বি কমপ্লেক্সে থাকা থিয়ামিন ও রিবোফ্লাবিন শরীরে এনার্জি তৈরি করে থাকে। শরীরে কোষের বৃদ্ধি ও কোষকে কার্যক্ষম করে তুলতে সাহায্য করে লেবুর রস। লেবুর রস শরীরের কোষ গুলোকে ভালো রাখতে সাহায্য করে এবং কোষের বৃদ্ধি ঘটায়। 



।  লেবুর রস খাবারে থাকা সালমোনেলা জীবাণুকে মারতে সাহায্য করে । এই লেবুর রসের সঙ্গে অল্প ভিনিগার মিশিয়ে বাথরুমে ঢাললে  তা বিক্রিয়া করে ১৫ মিনিটের মধ্যে বাথরুম পরিষ্কার করে। 



। লেবুতে  মধ্যে রয়েছে  অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট  যা আমাদের শরীরে ক্যানসার হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে। লিয়মিত লেবু খাদ্য তালিকায় রেখে আমরা ক্যান্সার থেকে রক্ষা পেতে পারি।লিভার, হাড়, স্টমাক, ব্রেস্ট ও কোলন ক্যানসার থেকে রক্ষা করে লেবুর রসের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। 



৫। হার্টের রোগ সরাতেও কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে লেবু। গ্যাস্টিক, ঝালাপোড়া বা বদহজম আমাদের অনেকেরই আছে, অনেকের বুক জ্বালাপোড়া করে এ সমস্যা গুলো থেকে মুক্তি পেতে খাবারের পরে নিয়মিত লেবু খেলে বদহজম, বুকের জ্বালাপোড়া কমবে।




৬। দাঁতের  মাড়ি থেকে রক্ত পরা,  মারি ফুলে যাওয়া এমন অনেক  কাজে আসে লেবুর রস। লেবুতে থাকা ভিটামিন সি দাঁতের মাড়িকে রক্ষা  করে থাকে। দাঁতের মারিকে শক্ত মজবুত ও প্রানবন্ধব রাখতে  অনেক প্রকার দাঁত মাঝার ঔষধে লবুর শক্তি ব্যবহার করা হয়ে থাকে।




৭। আমরা অনেকে ত্বকের ভ্রনের সমস্যায় ভুগে থাকি। কিন্তু এ লেবু যদি আমরা হালকাভাবে ত্বকে মেখি তাহলে আস্তে আস্তে আমাদের ভ্রনের সমস্যা দূর হয়ে যাবে।




। আমাদের অনেকেরেই সর্দি,কাশির সমস্যা রয়েছে। হালকা গরম পানির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে পান করলে শর্দি,কাশি থেকে  অনেকটাই পরিত্রাণ পাওয়া যায়।




Previous Post Next Post